কলকাতা, অগাস্ট ২৮: স্বামী বিবেকানন্দের (Swami Vivekananda) জীবন, দর্শন, গভীর আধ্যাত্মিকতাবোধ এবং সমস্ত কালজয়ী চিন্তাধারা নতুন প্রজন্মের কাছে পৌঁছে দিতে পরিচালক অভিজিৎ দাসগুপ্ত (Abhijit Dasgupta) নিয়ে এলেন এক নতুন সিরিজ, ‘নরেন’। অম্বুজা নেওটিয়ার চেয়ারম্যান হর্ষবর্ধন নেওটিয়ার (Harshavardhan Neotia) নিবেদনে এল এই সিরিজ। সিরিজের প্রধান উদ্দেশ্য হলো স্বামীজীর বাণী ও তৎকালীন ইতিহাসের মিলিত নির্যাসকে আজকের যুব সমাজের কাছে সহজলভ্য ও সহজ বোধ্য করে তোলা।

স্বামীজীর যুক্তিবাদ, বৈজ্ঞানিক দৃষ্টিভঙ্গি, পরম সহিষ্ণুতাবোধ ও বিশ্ব ভ্রাতৃত্বের আদর্শ আজও অত্যন্ত প্রাসঙ্গিক। পরিচালক অভিজিৎ দাসগুপ্ত দীর্ঘদিন ধরে বিবিধ তথ্যের সংগ্রাহক এবং গবেষণা ও সম্প্রচারের কাজে দক্ষ। এমনকী গল্প বলিয়ে হিসেবেও তিনি বিশেষ ভাবে পারদর্শী। এই দীর্ঘ অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে স্বামী বিবেকানন্দের মতাদর্শকে নব্য ভারতের কাছে পৌঁছে দেওয়ার প্রচেষ্টা তার এই নতুন সিরিজ ‘নরেন’ (Naren)। এই সিরিজের অনন্য বিন্যাসটি কাল্পনিক কাহিনী এবং শিক্ষামূলক সংলাপের সমন্বয়ে তৈরী একটি সমসাময়িক লেন্সের কাজ করে, যার মাধ্যমে স্বামী বিবেকানন্দের দর্শনকে উপলব্ধি করা যায়।

অভিজিৎ দাসগুপ্ত বলেন, “প্রযুক্তি এবং আধ্যাত্মিকতার মেলবন্ধনে তৈরী এই সিরিজ আজকের যুবকদের কাছে স্বামী বিবেকানন্দের কালজয়ী জ্ঞানকে নতুন ভাবে তুলে ধরবে। একজন কাল্পনিক বিজ্ঞানের অধ্যাপক ও তার ছাত্রদের মধ্যে একটি ইন্টার‌্যাক্টিভ প্রশ্ন-উত্তর বিন্যাসের মাধ্যমে আমরা স্বামীজির মূল্যবোধকে আকর্ষণীয় মোড়কে উপস্থাপন করার চেষ্টা করেছি”।

‘নরেন’ সিরিজ লঞ্চ অনুষ্ঠানে, হর্ষবর্ধন নেওটিয়া বলেন, “এই আধুনিক ও অদ্বিতীয় প্রকল্পের অংশ হতে পেরে আমি খুব আনন্দিত। আজকের তরুণদের কাছে স্বামীজীর ঐক্য ও আত্মবিশ্বাসের যে বাণী তা সহজ ও অভিনব উপায়ে প্রকাশ করার জন্য এটি এক অনন্য প্রচেষ্টা। নরেন-এর মত একটি মৌলিক সৃষ্টির পাশে আমরা সব সময় আছি। কারণ অম্বুজা নেওটিয়াতে আমরা বিশ্বাস করি ভারতবর্ষের সবচেয়ে মূল্যবান সম্পদ, আমাদের সংস্কৃতি ও শিক্ষার ঐতিহ্যকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া আমাদের একান্ত কর্তব্য”।

এই অনুষ্ঠানে রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশনের সাধারণ সম্পাদক স্বামী সুবীরানন্দ (Swami Subirananda), কোঝিকোড় রামকৃষ্ণ মিশন সেবাশ্রমের সম্পাদক স্বামী নরসিংহানন্দ সহ আরো অনেকে উপস্থিত ছিলেন। স্বামী সুবীরানন্দজি বলেন, “‘নরেন’ সিরিজ-এর মাধ্যমে, অভিজিৎ দাশগুপ্ত স্বামী বিবেকানন্দের অসামান্য উত্তরাধিকারকে এমনভাবে জীবন্ত করে তুলেছেন যা হৃদয় ও মনকে মোহিত করে এবং নিশ্চিত করবে যে স্বামীজীর অসীম জ্ঞানভান্ডার পরবর্তী প্রজন্মকে অনুপ্রাণিত করে যাবে”।

ব্যতিক্রমী ডকুমেন্টারি হিসাবে ‘নরেন’ সিরিজটি ২৬ টিরও বেশি আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি অর্জন করেছে। ‘নরেন’-এর এই সাফল্য এটাই প্রমান করে যে স্বামী বিবেকানন্দের আদর্শ সঠিক উপায়ে ছড়িয়ে দিতে পারলে তা বিশ্বব্যাপী শ্রোতাদের পাথেয় হয়ে থাকবে চিরকাল। ৫ পর্বের এই সিরিজ ইউটিউবে দেখতে পাওয়া যাচ্ছে।

Loading

Spread the love