কলকাতা, সেপ্টেম্বর ২৬: কেউ বলেন গান থেকে গান হয়, কেউ বলে প্রেম ভাঙ্গার ব্যথা জন্ম দেয় গানের কথার। তবে আসল কথা ভাল গানের জন্ম দেয় হয়ত নস্ট্যালজিয়া। পুজোর ঠিক আগে সেরকমই এক নস্ট্যালজিয়ার দাঁড় বেয়ে পুরোনো এক ঘাটে নোঙর ফেলে বাবুল সুপ্রিয় (Babul Supriyo) বললেন, “না না ভুলিনি’।

একসময়ের দারুণ হিট গান ‘চায়ের দোকানে আড্ডা সকাল সন্ধ্যে’ বাঙালি শ্রোতারা ভুলে যাননি। আর এবার ফিরতি এক গানে সোমলতা আচার্য চৌধুরীকে (Somlata Acharyya Chowdhury) সঙ্গে নিয়ে বাবুল আবার গাইলেন পুজোর গান “না না ভুলিনি”।

অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায় (Anindya Chatterjee), উপল (Upal Sengupta) এবং অনেকে মিলে ‘রাতজাগা তারা’ নামে একটা অনুষ্ঠান করেছিল। সেখানে গ্রিন রুমে জ্যামিং সেশনে “চায়ের দোকানে আড্ডা” গানটা গাইতে থাকেন বাবুল। তখন দেখেন বাকিরা মুখস্থ গাইছে সেই গান। তাই গানটার সিক্যুয়েলের কথা মাথায় আসে তাঁর। এরপর সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের (Srijit Mukherji) কথা শুনে সপ্তক সানাই দাসের (Saptak Sanai Das) সঙ্গে গান নিয়ে আড্ডা দিতে দিতেই পুরো গান, জানালেন বাবুল নিজেই। গানের কথা এবার নিজেই লিখেছেন বাবুল সুপ্রিয়।

গান মানেই এখন একসাথে আসে মিউজিক ভিডিওর কথা। এই গানের মিউজিক ভিডিও আসলে নস্ট্যালজিয়ার স্মৃতিরোমন্থন। স্কটিশ চার্চ কলেজের প্রাক্তনী কলেজবেলার স্মৃতিতে ডুব দিলেন নতুন প্রজন্মের হাত ধরে। গানের মিউজিক ভিডিওতে গায়ক-গায়িকার দোসর অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায় (Anindya Chatterjee) আর লহমা ভট্টাচার্য (Lahoma Bhattacharya)। বাবুলের ভাবনায় ‘লহমার অনিন্দ্য প্রেম’ বা ‘অনিন্দ্যর প্রেমের লহমা’কে অভ্রজিৎ সেনের (Abhrajit Sen) নির্দেশনায় ক্যামেরাবন্দী করেছেন সৌমিক হালদার (Soumik Halder)। স্কটিশ চার্চ কলেজ ছাড়া ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়াল এবং কলকাতার আরও কিছু জায়গায় দৃশ্যগ্রহণ করা হয়েছে “না না ভুলিনি”।

কলকাতায় আশা অডিও নিবেদিত এই গানের আনুষ্ঠানিক প্রকাশ অনুষ্ঠানে বাবুল সুপ্রিয়র সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন সহশিল্পী সোমলতা আচার্য, অভ্রজিৎ সেন, সপ্তক সানাই দাস, অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়, লহমা ভট্টাচার্য, সৃজিত মুখোপাধ্যায়, অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায় (চন্দ্রবিন্দু), উপল এবং আশা অডিওর কর্ণধার অপেক্ষা লাহিড়ী (Apeksha Lahiri)। উপস্থিত ছিলেন “চায়ের দোকানে আড্ডা সকাল সন্ধ্যে”র গীতিকার প্রিয় চট্টোপাধ্যায় (Priyo Chattopadhyay)।

Loading

Spread the love