কলকাতা, অগাস্ট ১৪: ইন্ডিয়ান চেম্বার অব কমার্সের (ICC) সহযোগিতায় বিধাননগর পুলিশ কমিশনারেটের উদ্যোগে কলকাতায় হয়ে গেল ‘বাঘিনী ২’। নারীর ক্ষমতায়নের উদ্দেশ্যে সিস্টার নিবেদিতা ইউনিভার্সিটি (SNU) ক্যাম্পাসে সফলভাবেই হল এই অনুষ্ঠান। নারীর আত্মরক্ষার (self defense) বিভিন্ন প্রায়োগিক কৌশল নিয়ে আলোচনা ও শেখানো হয়।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিধাননগর মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশনের মেয়র কৃষ্ণা চক্রবর্তী, আইপিএস গৌরব শর্মা, আইপিএস বিশপ সরকার, আইপিএস চারু শর্মা, আইপিএস বিশ্বজিৎ ঘোষ সহ ইন্ডিয়ান চেম্বার অব কমার্সের অ্যাডিশনাল ডিরেক্টর সুস্মিতা দাস।

‘বাঘিনী ২’ এর সাফল্য নিয়ে গৌরব শর্মা বলেন, “আমি যখন শিলিগুড়িতে ছিলাম তখনই ‘বাঘিনী’ প্রজেক্ট শুরু করি যেটা এখন কলকাতাতেও করতে পারলাম। শুরু থেকেই মানুষের উৎসাহ ছিল নজরে পড়ার মত। নারীর আত্মরক্ষার প্রায়োগিক কৌশল জানা খুব জরুরী এবং এটা আমাদের কর্তব্য তাদের সেই বিষয়ে তৈরি করে তোলা”।

কৃষ্ণা চক্রবর্তীর কথায়, “নারীর জন্য এই উদ্যোগ খুবই উৎসাহের। এতে ওদের আত্মবিশ্বাস আর মানসিক শক্তির অনেকটা উন্নতি হবে। ‘বাঘিনী’ আবারও ফিরবে আশা রাখি”।

সুস্মিতা দাস বলেন, “নারী ক্ষমতাশালী। দরকার শুধু প্রায়োগিক আত্মবিশ্বাসের। সঠিক পথ না পাওয়া সবচেয়ে বড় সমস্যা। ‘বাঘিনী’ সেই পথ দেখায়। বিধাননগর পুলিশ কমিশনারেট ‘বাঘিনী ২’ নিয়ে যে ইন্ডিয়ান চেম্বার অব কমার্সের উপর বিশ্বাস রেখেছেন তাতে আমরা কৃতজ্ঞ”।

Loading

Spread the love